Header Border

ঢাকা, শনিবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল) ২৮.৯৬°সে
সংবাদ শিরোনামঃ
দক্ষিণখান থানার ফায়দাবাদ গন কবরস্থান এলাকার ঘটনা নিয়ে একটি অডিও ক্লিপ ফাঁস উত্তরায় কাউন্সিলর ও তার সচিবের সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে এশিয়ান টিভির সাংবাদিকের উপর হামলা । PRINT Q MACHINERY কেন আ.লীগ ছাড়লেন, জানালেন কাদের মির্জা ভ্যাকসিন দেওয়ায় বাংলাদেশ অনেক উন্নত দেশের তুলনায় এগিয়ে টঙ্গীতে আউচপাড়ায় ফারজানা নামে এক তরুনীর ধর্ষন অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চালু বুধবার থেকে ইতালিতে কঠোর লকডাউনের পর ২৬ এপ্রিল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি মুক্ত গণমাধ্যম সূচকে আরও একধাপ পেছাল বাংলাদেশ বাংলাদেশে করোনা টিকা উৎপাদনের প্রস্তাব রাশিয়ার বঙ্গবন্ধুর শতবর্ষ উৎযাপন করল দক্ষিণখান ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ (উত্তর) মাইনুল হাসান খোকনের সাথে ফিরলেন প্রিন্স

কুমিল্লায় করোনা শানাক্তের পরিমান বাড়ায় আজ মধ্যরাত থেকে সিটি কর্পোরেশনের ৪টি ওয়ার্ড লকডাউন

রুহুল আমীন খন্দকার, বিশেষ প্রতিনিধি ::

করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের দিক থেকে সারা দেশে কুমিল্লার অবস্থান চতুর্থ। এ জেলায় আশংকাজনক হারে বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। সেই সাথে মৃত্যুর হারও অনেকটায় বেশি। বুধবার পর্যন্ত এ জেলায় করোনা শানাক্তের পরিমান দাঁড়িয়েছে প্রায় আড়াই হাজারের মতো। শুধু কুমিল্লা সিটিকর্পোরেশন এলাকাতেই এই শানাক্তের পরিমান ৫শ’রও বেশি। প্রতিদিন বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। তাই সংক্রমণ প্রতিরোধে আজ শুক্রবার (১৯ জুন) থেকে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের ৪টি ওয়ার্ডকে আবারও লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের হার আশঙ্কাজনকহারে বৃদ্ধির ফলে নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির এক জরুরী সভার আহবান করা হয়। ওই সভা থেকে সিটি কর্পোরেশনের ০৩-নং, ১০-নং, ১২-নং ও ১৩-নং এই ৪টি ওয়ার্ডকে লকডাউনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভা শেষে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি সাংবাদিকদের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

তিনি জানান, এসকল ওয়ার্ডে শুক্রবার (১৯ জুন) রাত ১২ টা থেকে ১৪ দিনের জন্য লকডাউন কার্যক্রম শুরু হবে। যা আগামী ৩ জুলাই ২০২০ ইং পর্যন্ত লকডাউন বলবদ থাকবে।

এদিকে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের ৪টি ওয়ার্ডেকে আবারও লকডাউন ঘোষণার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন নগরবাসী। তবে, এবারের লকডাউনে কঠোরতা আরোপ এবং সবগুলো ওয়ার্ডকেই এর আওতায় আনার দাবি নগরবাসীর। সেই সাথে এলাকা ভিত্তিক এই লকডাউন নিয়েও চিন্তিত তারা। কারন, কুমিল্লা সিটির ২৭টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৪টি মাত্র ওয়ার্ডেকে লকডাউন দিয়ে কতোটা সুফল আসবে তা নিয়েও ভাবছেন নগরবাসী। তবে, এবারের লকডাউন কালে প্রশাসনের কাছ থেকে আগের চেয়ে কঠোরতা আশা করছেন সুশীল সমাজ।

এ ব্যাপারে সামাজিক সংগঠন ঐতিহ্য কুমিল্লা এর নির্বাহী সদস্য আহসান হাবিব বলেন, লকডাউনের এ সিদ্ধান্তকে আমরা স্বাগত জানাই। তবে, আমরা সন্দিহান যে, ২৭ টি ওয়ার্ডের মধ্যে মাত্র ৪টি ওয়ার্ডকে লকডাউন করে কতোটা সুফল বয়ে আনবে। কেননা, এই চারটি ওয়ার্ডে যতক্ষন লকডাউন শেষ হবে তখন অন্যান্য ওয়ার্ডের লোকজনের আবারও সেগুলোতে যাতায়ত শুরু হবে এবং সেই সকল ওয়ার্ডের মানুষগুলোও অন্য ওয়ার্ডে যাতায়াত করবে। এতেকরে রোগসংক্রমণের আশঙ্কা থেকেই যায়।

তবে, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর জানালেন, এবারের লকডাউন সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী কঠোরতা আরোপ করা হবে। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড গুলোতে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। বাইরের কেউ প্রবেশ করতে কিংবা কাউকে বের হতেও দেয়া হবে না। এখানকার সব ধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে বলেও জানালেন জেলা প্রশাসক।

প্রসঙ্গত, বুধবার রাত পর্যন্ত কুমিল্লা জেলায় করোনা পজেটিভ রোগী শনাক্ত হয়েছে ২২শত, মোট মৃত্যুবরণ করেছেন ৬৩ জন। আর সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৬৫১ জন।

উপজেলাওয়ারী আক্রান্ত হলো যথাক্রমে, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনে ৫১১ জন, দেবীদ্বারে ২৩৯ জন, মুরাদনগরে ১৮৫ জন, চান্দিনায় ১৫৬ জন, লাকসামে ১৬২ জন, চৌদ্দগ্রামে ১৭৯ জন, বুড়িচংয়ে ১২৭ জন, নাঙ্গলকোটে ১০১ জন, আদর্শ সদরে ৯২ জন, দাউদকান্দিতে ৮৭ জন, সদর দক্ষিনে ৫৫ জন, তিতাসে ৬২ জন, ব্রাহ্মনপাড়ায় ৪৯ জন, বরুড়ায় ৬০ জন, মনোহরগঞ্জে ৪৭ জন, হোমনায় ৪৫ জন, মেঘনায় ২৪ জন, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে ২০ জন ও লালমাইয়ে ১৬ জন।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, লকডাউন থাকা এবং নগরীর অন্যান্য এলাকায় শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি মনিটরিং করবেন। এছাড়াও পুলিশ সুপার কার্যালয় থেকে স্বেচ্ছাসেবকদের সমন্বয়ও করা হবে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ, সেনাবাহিনীর সাথে র‍্যাবের যৌথ সমন্বয় থাকবে।

এ বিষয়ে সর্বশেষ কুমিল্লা জেলার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, এই ৪টি ওয়ার্ডের অসহায় পরিবারের জন্য জেলা প্রশাসন থেকে ১০ কেজি করে চাল দেবে। এছাড়া তেল, ডাল, পেঁয়াজসহ অন্যান্য খাদ্যসামগ্রী দেবেন সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। আর ডিসি অফিস থেকে স্বেচ্ছাসেবকদের কার্ড দেয়া হবে। এ সময় জরুরি সেবার অংশ হিসেবে হাসপাতাল ছাড়া বাকি সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। এমনকি কোন ডাক্তারও ব্যক্তিগত চেম্বার খোলা রাখতে পারবেন না লকডাউন এলাকায়। তবে ওষুধ ও মুদি দোকান খোলা থাকবে।

পুলিশ সুপার আরো বলেন, লকডাউন চলাকালে প্রশাসনের পাশাপাশি সার্বক্ষণিক পাহারা দেওয়ার বিষয়টি স্ব-স্ব এলাকার কাউন্সিলর ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। লকডাউনের আওতায় থাকা এলাকায় শুধু এটিএম বুথের মাধ্যমে আর্থিক লেনদেন করা যাবে। কোন প্রকার ব্যাংক বিমা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে না।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

দক্ষিণখান থানার ফায়দাবাদ গন কবরস্থান এলাকার ঘটনা নিয়ে একটি অডিও ক্লিপ ফাঁস
কেন আ.লীগ ছাড়লেন, জানালেন কাদের মির্জা
প্রয়াত যুবলীগ নেতার শোক সভায় করোনায় আক্রান্তদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় তানোরে দোয়া মাহফিল
পবিত্র ঈদ-উল-আযহার জামাত ঈদগার পরিবর্তে মসজিদে অনুষ্ঠিতসহ আরএমপি পুলিশের বিভিন্ন নির্দেশনা জারি
রাজশাহী মহানগরীতে নীতিমালা প্রত্যাহারের দাবিতে আইডিইবির উদ্যোগে মানববন্ধন
ঈদের দিন রাতের মধ্যেই কোরবানির বর্জ্য অপসারণের আশ্বাস রাসিক মেয়র লিটনের

আরও খবর

Design & Developed By It Host Seba